Breaking The Silence Sultana's Dream

About Sultana's Dream

সুলতানা’স ড্রিম বা সুলতানার স্বপ্ন। দক্ষিণ এশিয়ায় নারী শিক্ষার অগ্রদূত বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের একটি গল্প। এটি ১৯০২ সালে লেখাটি প্রকাশিত হয় দ্য ইন্ডিয়ান লেডিস ম্যাগাজিনে। যেখানে বেগম রোকেয়া তার কল্পনার জগতকে দেখেছেন সম্পূর্ণ ভিন্ন ভাবে। মেয়েরা অন্দর মহলের বাইরে নির্ভীক ভাবে বিচরণ করে এবং ছেলেরা বাড়ির অন্দর মহলে থাকে । তার কল্পনার জগতে ছেলেরা ঘরের ভিতরে থাকে মেয়েরা কোন ভয় এবং সংকোচ ছাড়াই বাইরের জগতে চলাফেরা করতে পারে।

কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপট একেবারেই ভিন্ন আমরা প্রতি নিয়তই দেখতে পাই যে বাংলাদেশে নারীদের প্রতি সহিংসতার ঘটনা ঘটেই চলছে। আমরা বিশ্বাস করি নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি একান্ত প্রয়োজন। আমরা চাই এমন একটি ক্ষেত্র তৈরি করতে যেখানে মেয়েরা নিজেদের সাথে বাঁ আসে পাশে ঘটে যাওয়া সহিংসতার ঘটনাগুলো কোন রকম সংকোচ ছাড়াই জনসম্মুখে ব্যাক্ত করতে পারবে। প্রয়োজন নিজেদের অস্তিত্বের প্রকাশ করা।


Begum Rokeya, a pioneer of women’s education in South Asia wrote a novel in 1902: Sultana’s Dream. It’s a science fiction set in a world where women operate in the public space, and in order to maintain purdah, men have gone into the zenanas (inner quarters). In Sultana’s dream world, subversions are possible. In this world, women can take up public space without fear or guilt.

As we see the number of violence against women cases escalate all over Bangladesh, we feel it is even more important for women to put forward their own narratives, take up public imagination with their stories and proclaim their individuality. At the end of the day, we live through our stories, we are as real in history as our stories, and we connect to women across generations through our stories.